Breaking News

ইস’লাম বিদ্বেষী মন্তব্যের জেরে দুবাইয়ে ৩ উগ্র ভা’রতীয় হিন্দুকে বরখাস্ত

সংযু’ক্ত আরব আমিরাতে তিন ভা’রতীয় নাগরিককে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে “ইস’লাম বিদ্বেষী” পোস্ট দেয়ার জন্য চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। করো’নাভাই’রাস প্রাদুর্ভাবের সময় ভা’রতীয় মু’সলমানদের বি’রুদ্ধে হিন্দু আধিপত্যবাদীদের সহিং’সতামূলক কার্যক্রম দেখা দিয়েছে।

এই তিনজন আরো ছয় ভা’রতীয় নাগরিকদের সাথে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যেমে বিভিন্ন উগ্রবাদী পোস্ট করে আসছিল। পরে সামাজিক যোগামাধ্যম ব্যবহারকারী এসব পোস্ট নিয়োগ কোম্পানীর সামনে নিয়ে আসলে তাদের বরখাস্ত করা হয়।

এদের মধ্যে একজন দুবাইয়ের একটি ইতালিয় রেস্টুরেন্টের কর্মচারী। এই ভা’রতীয় লোকটি শেফ হিসাবে কাজ করছিল বলে মনে করা হয়।

গাল্ফ নিউজের দেয়া তথ্য অনুসারে শারজাহ ভিত্তিক নিউমিক্স অটোমেশন আরো জানিয়েছে যে তারা পরবর্তী নোটিশ না দেয়া পর্যন্ত একটি স্টোরকিপারকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে।

কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আম’রা তাদের বেতন আ’ট’কে রেখেছি এবং তাদেরকে কাজে না আসতে বলেছি। বিষয়টি ত’দন্ত করা হচ্ছে। এসব ব্যাপারে আমাদের ছাড় দেয়ার কোন সুযোগ নেই। যে কেউ কারোর ধ’র্মের অবমাননা বা অবজ্ঞার জন্য দোষী সাব্যস্ত হলে তার পরিণতি ভোগ করতে হবে।

আর তৃতীয় ব্যক্তি দুবাই-ভিত্তিক ট্রান্সগার্ড গ্রুপে নিযু’ক্ত ছিলেন। কোম্পানীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিশাল ঠাকুর নামের এক কর্মচারী যিনি তার ফেসবুক পেজ থেকে বেশ কয়েকটি ইস’লাম বিরোধী বক্তব্য পোস্ট করেছিলেন তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

ট্রান্সগার্ড কোম্পানীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তার আসল পরিচয় বের করে যথাযথ কতৃপক্ষের হাতে তোলে দেয়া হয়েছে। এছাড়া আরব আমিরাতের সাইবার ক্রা’ইম ধারা অনুযায়ী তাকে দুবাই পু’লিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে।

হিন্দু আধিপত্যবাদীদের দ্বারা ভা’রতজুড়ে ক্রমবর্ধমান মু’সলিম বিরোধীতার জেরে আরব আমিরাতে এমন বরখাস্তের ঘটনা ঘটেছে। দেশটির ক্ষমতাসীন কট্টরপন্থী বিজেপি সরকারের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অনুগত হিন্দুরা করো’নাভাই’রাস ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য মু’সলমানদের দোষারোপ করায় এই ধরনের আক্রমণ বেড়েছে।

২০০২ সালের গুজরাটে দাঙ্গায় এক হাজারেরও বেশি মু’সলমানকে হ’ত্যার দায়ে মোদিকে মা’র্কিন যু’ক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। তার সম’র্থকরা ভাই’রাসটিকে “করো’না জিহাদ” বলে অ’ভিহিত করে এই মহামা’রীটি হিন্দুদের সংক্রামিত করতে মু’সলমানরা ষড়যন্ত্র করছে বলে মিথ্যা অ’ভিযোগ ছড়িয়ে দিয়েছে।

উগ্র হিন্দুদের ক্রমাগত ইস’লাম বিদ্বেষী পোস্টের জেরে মধ্যপ্রাচ্যে বাসিন্দারাও তীব্র প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে। তারা হিন্দু চরমপন্থীদের প্রতি সহানুভূতিশীল ভা’রতীয় প্রবাসীদের বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন। এছাড়া সৌদি আরবের একজন ধ’র্মীয় নেতা হিন্দু চরমপন্থীদের ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নিতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর প্রতি আহবান জানান।

আর কয়েক দিন আগে আরব আমিরাতের প্রিন্সেস হেন্দ আল কাসিমি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছিলেন, ‘‌ভা’রতীয়দের কেমন লাগবে, যদি আমাদের দেশ বলে যে আমিরাতে হিন্দুদের ঢুকতে দেয়া হবে না?‌ এই দেশ থেকে বছরে প্রায় ১৪ বিলিয়ন ডলার উপার্জন করে নিয়ে যান ভা’রতীয়রা। যদি সেটা হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে কী’ হবে বুঝতে পারছেন?‌ মিডল ইস্ট মনিটর।

About admin

Check Also

আরব আমিরাতে ৩০% কোম্পানীর কর্মী ছাটাইয়ের পরিকল্পনা, ১০% কোম্পানীর বেতন কমিয়েছে

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আয়-ব্যায়ের উপর কোভিড -১৯ এর প্রত্যক্ষ প্রভাব প্রাথমিকভাবে আশঙ্কার চেয়ে কম। যদিও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *