রেমডিসিভির দাম-উৎপাদনে বাংলাদেশের চেয়ে পিছিয়ে ভারত

করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ভারতের ড্রাগ রেগুলেটর অবশেষে রেমডিসিভির তৈরির অনুমতি দিয়েছে।

দেশটি হেটেরো ল্যাবসকে (Hetero Labs) গিলিয়াড সাইন্সেস এর উদ্ভাবিত কোভিড-১৯ এর ড্রাগ রেমডিসিভির উৎপাদন করার অনুমতি দিয়েছে। ভারতীয় ঔষধ কোম্পানি রোববার (২১ জুন) এ তথ্য জানিয়েছে।

এই ড্রাগের ভারতে নাম হবে কোভিফর (Covifor) এবং ধারনা করা হচ্ছে এর মূল্য ধরা হবে প্রতি ডোজ ৫ হাজার টাকা থেকে হাজার টাকা রুপির ভেতরে। ডলারের হিসাবে ৬৬ ডলার থেকে ৭৯ ডলার।

ভারতের আরেক ঔষধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি সিচলা লিঃ (Cipla Ltd) ও অনুমতি পেয়েছে। গিলিয়াড সাইন্সেস গত মাসে ভারত ও পাকিস্তানের ৫টি কোম্পানির সাথে রেমডিসিভির তৈরির জন্য চুক্তি করে।

এই চুক্তির অধীনে Jubilant Life Sciences Ltd, Cipla, Hetero Labs, Mylan NV এবং Ferozsons Laboratories Ltd রেমডিসিভির উৎপাদন এবং বিশ্বের ১২৭টি দেশে বিক্রি করতে পারবে।

বাংলাদেশে দুটি কোম্পানি বিশ্বের সর্বপ্রথম রেমডিসিভির তৈরি করে। বেক্সিমকোর তৈরি বেমসিভির এর মূল্য ৫ হাজার ৫০০ টাকা প্রতি ডোজ।

ট্যাক্স বাদে প্রাইভেট হাসপাতাল গুলি প্রতি ডোজ ৪ হাজার ৮০০ টাকায় কিনতে পারবে। এসকেএফ এর ঔষধের নাম রেমিভির যেটার মূল্য ও এরকম।

ভারতীয় Covifor এর মূল্য বাংলাদেশি টাকায় সর্বনিম্ন ৫ হাজার ৮০০ ড়াকা হতে সর্বোচ্চ ৭ হাজার টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

স্বাস্থ্যখাতে বাংলাদেশ ভারতের থেকে পিছিয়ে থাকলেও ঔষধ শিল্পে বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে।

somoynews

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *