ভিক্ষুককে চকলেটের সঙ্গে নে’শাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে ৮৬০ টাকা ছিনতাই

কি’শোরগঞ্জের ভৈরবে এক বৃদ্ধ ভিক্ষুককে লাল রঙের চকলেট খাইয়ে অচেতন করে ৮৬০ টাকা ছিনতাই করেছে এক দুর্বৃত্ত। পরে তাঁকে উ’দ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে দুই তরুণ।

চিকিৎসা নেওয়ার পর সুস্থ হলে আজ বুধবার বাড়ি ফিরতে পারেন সলিম উদ্দিন (৬২) নামের ওই ভিক্ষুক।ভৈরব শহরের দক্ষিণ ভৈরবপুর এলাকার তরুণ সমাজকর্মী শামীম রহমান জয় জানান, গত সোমবার সকালে তিনি তাঁর বন্ধু ইম’রান তুষারকে নিয়ে ভৈরব রেলওয়ে জংশন স্টেশনে যান একটি প্রয়োজনে। তখন হঠাৎ তাঁরা দেখতে পান রেলওয়ে স্টেশনের ওভারব্রিজের নিচে মানুষের জটলা। তারাও তখন উৎসুক চোখে সেখানে যান। দেখেন এক বৃদ্ধ ভিক্ষুক অচেতন হয়ে পড়ে আছেন। পাশে তাঁর শি’শু সন্তানটি (৭) কাঁদছে।

তারা তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্তে অচেতন বৃদ্ধকে অটোরিকশায় করে নিয়ে যান উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানকার জরুরি বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ভর্তি করেন পুরুষ ওয়ার্ডে। সেখানে রাতেই বৃদ্ধের জ্ঞান ফিরে আসে। পরে তাঁর কাছ থেকে স্ত্রী’র মোবাইল নম্বর নিয়ে ফোন করে ঘটনা জানান। তিনি এসে আজ বিকেলে নিয়ে যান স্বামী ও শি’শু সন্তানকে।ভিক্ষুক সলিম উদ্দিন জানান, তিনি পেশায় একজন ভিক্ষুক। কি’শোরগঞ্জ জে’লার মানিকখালির নাগেরগাঁও এলাকায় তাঁর বাড়ি। তাঁর প্রথম স্ত্রী’ মা’রা যাওয়ায় এবং সেই স্ত্রী’র গর্ভে সন্তান না হওয়ায় তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন। বর্তমান স্ত্রী’র নাম রূপা বেগম (৩৪)।

রূপার গর্ভে তাঁর চার সন্তান। দুই ছে’লে ও দুই মে’য়ে। কিছুদিন আগে স্ত্রী’র সঙ্গে ঝগড়া করে তৃতীয় সন্তান মতিউরকে (৭) নিয়ে তিনি ভৈরব রেলওয়ে জংশন স্টেশনে চলে আসেন। এখানে ভিক্ষা করে এখানেই থাকেন। গত রোববার রাতে অ’পরিচিত এক লোকের সঙ্গে পরিচিত হন তিনি। কথায় কথায় বেশ খাতির জমে ওঠে দুজনের।

আলাপের এক ফাঁকে সলিম উদ্দিন ওই লোককে দিয়ে তাঁর কাছে থাকা ভিক্ষার ৮৬০ টাকা গুণে রাখেন। এ সময় ওই লোকের কেনা লাল রঙের চকলেট খান তিনি। তাঁর সামনে বসে ওই লোকও আরেকটি চকলেট খান।

পরে তিনি আর কিছুই জানেন না। জ্ঞান ফিরলে নিজেকে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকতে দেখেন।ভৈরব উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মক’র্তা (আরএমও) ডা. কে এন এম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘ভিক্ষুক সলিম উদ্দিনকে লোকটি চকলেটের সঙ্গে নে’শাজাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে অ’জ্ঞান করে সর্বস্ব লুটে নেয়। আমাদের চিকিৎসায় তিনি বর্তমানে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠায় আজ তাঁকে রিলিজ (ছাড়পত্র) দেওয়া হয়েছে।’

সুরমা নিউজ

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *