মুসলিমদের চিকিৎসা না দিয়ে পেটানো উচিত: মুসলিমবিদ্বেষী ভারতীয় চিকিৎসক

মুসলিমরা জঙ্গি, তাদের চিকিৎসা করাই উচিৎ নয়। বরং তাদের পিটিয়ে অন্ধকার কুটিরে ভরে রাখা দরকার। সরকার তাদের পেছনে যে অর্থ ব্যয় করছে তা অপ্রয়োজনীয়।

ভারতের মুসলমানদের ব্যাপারে এমনই সাম্প্রতিক মন্তব্য করেছেন দেশটির এক চিকিৎসক। অনলাইনে তার এসব মন্তব্য ভাইরাল হয়ে গেছে। একজন চিকিৎসকের মুখে এই ধরনের বিদ্বেষমূলক মন্তব্য শুনে বিস্ময় প্রকাশের পাশাপাশি সমালোচনাও করছেন অনেকে।

মুসলিমবিদ্বেষী এই চিকিৎসক হলেন দেশটির উত্তরপ্রদেশের কানপুরের গণেশশঙ্কর বিদ্যার্থী মেমোরিয়াল মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষা আরতি লাল চন্দানি। জানা যায়, ভারতে করোনাভাইরাস ছড়ানোর জন্য শুরু থেকেই মুসলিমদের দায়ী করে আসছেন আরতি।

অনলাইনে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে তাকে বলতে শোনা যায়, মুসলিমদের জন্য টেস্টিং কিট,

চিকিৎসা সামগ্রী নষ্ট করাটা একেবারেই অপ্রয়োজনীয়। কারণ ওরা জঙ্গি, ওদের চিকিৎসা না করে পেটানো উচিৎ। কোয়ারেন্টাইন সেন্টার নয়, বরং মুসলিমদের জায়গা হওয়া উচিৎ অন্ধকার কুঠুরিতে।

আবার আরতি যখন এসব বলছেন, তখন তার পাশ থেকেই আরেক চিকিৎসক বলছেন, মুসলিমদের শরীরে কোনো ওষুধ পুশ করে মেরে ফেললে কেমন হয়? সেই প্রস্তাবেও কোনো আপত্তি জানাননি তিনি।

ক্ষমতাসীন বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগও তুলেছেন এই অধ্যক্ষ। তার মতে, মুসলিমদের এত যত্ন করে চিকিৎসা করিয়ে আসলে সংখ্যালঘুদের তোষণ করছে বিজেপি সরকার। ভারতের সঞ্চয় যে কীভাবে নষ্ট হচ্ছে এটা তারই উদাহরণ। তিনি বিষয়টি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনকে নিজে জানিয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন।

এদিকে, আরতি লাল চন্দানির এই ইসলামবিদ্বেষী বক্তব্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

অনেকে বলছেন, তিনি আসলে নামেই করোনাযোদ্ধা। গোটা দেশ যেখানে করোনাযোদ্ধাদের সম্মানের চোখে দেখছে। তখন তিনি একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের প্রতি ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়াচ্ছেন। তার এই মন্তব্য অত্যন্ত নিন্দনীয়।

rahbar24

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *