পাকিস্তান থেকে প্রাথমিকভাবে আসবে ৩০০ টন পেঁয়াজ!

এবার পাকিস্তান থেকে আসছে পেঁয়াজ। ইতিমধ্যেই অর্ডার গেছে হয়েছে কয়েক ৩০০শ টন পেঁয়াজ কেনার। পাকিস্তানের বাজারে এখনও পেঁয়াজের দাম কম। করাচির খুচরা বাজারে বাংলাদেশি অর্থে ৫০ টাকার কমে কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। বাংলাদেশ ৩০০ টন পেঁয়াজের যে ক্রয়- আদেশ পাঠিয়েছে তা চট্টগ্রাম বন্দর পর্যন্ত পৌঁছাতে খরচ পড়বে কেজি প্রতি ৫৫-৫৭ টাকা।

পাকিস্তানি মিডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, কমপক্ষে ১৫ বছর পর বাংলাদেশের কাছ থেকে পেঁয়াজ রপ্তানির অর্ডার পেয়েছে পাকিস্তান। করাচি ভিত্তিক রোশান এন্টারপ্রাইজের সঙ্গে ঢাকার তাসো এন্টারপ্রাইজের মধ্যে ৩০০ টন পেঁয়াজ রপ্তানির চুক্তি হয়েছে সম্প্রতি।

ট্রেড ডেভেলপমেন্ট অথোরিটি অব পাকিস্তানের (টিডিএপি) এক কর্মকর্তা খবরটি নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছে দেশটির দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল।

সেখানে বলা হয়, প্রতিবেশী দেশের ওপর ভারতীয় পেঁয়াজ রপ্তানির নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশের স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। ওই কর্মকর্তা সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, অর্ডার মতে প্রতি কন্টেইনারে ২৮ টন করে কমপক্ষে ১২ কনটেইনার পেঁয়াজ বাংলাদেশে যাবে। পরবর্তীতে আরও রপ্তানি আদেশ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বাংলাদেশ প্রতিবছর ৭ লাখ থেকে ১১ লাখ টন পেঁয়াজ আমদানি করে। এর ৭৫ ভাগই যেতো ভারত থেকে। স্থানীয় বাজারে সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য তুরস্ক, মিয়ানমার ও মিসরের মতো বিকল্প বাজারের সন্ধান করছে ঢাকা।

ওই কর্মকর্তা জানান, ভারতীয় নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশে পাকিস্তানের সম্ভাব্য বাজার সৃষ্টির সূযোগ এসেছে।

তিনি আরও জানান, পেঁয়াজ বাণিজ্য নিয়ে দুই দেশের সরকারও একমত হয়েছে।

একজন রপ্তানিকারক জানান, পাকিস্তানের বাজারের বর্তমান অবস্থা বিবেচনায় পেঁয়াজ রপ্তানি লাভজনক হবে।

অল পাকিস্তান ফ্রুট অ্যান্ড ভেজিটেবল এক্সপোর্টার্স, ইমপোর্টার্স অ্যান্ড মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান ওয়াহিদ আহমেদ বলেন, বর্তমানে টন প্রতি পেঁয়াজের মূল্য ৬০০ ডলার হবে (এক্সপোর্ট খরচ সহ) পাকিস্তানি পণ্যের বাজার হিসেবে বাংলাদেশ বেশ গুরুত্বপূর্ণ গন্তব্য বলেও জানানো হয় প্রতিবেদনে। এশিয়ার মধ্যে চীনের পর বাংলাদেশেই বেশি পণ্য রপ্তানি করত দেশটি। তবে উড়োজাহাজ যোগাযোগের স্বল্পতার কারণে সম্প্রতি তা কমে এসেছে।

insaf24

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *