টি১০ লীগে বাংলাদেশীদের প্রভাব: নতুন যুগের সূচনা

জুবায়ের আহমেদ: ভিনদেশী ক্রিকেট লীগে বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের কদর বাড়েনি এখনো। সাকিব আল হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান, রিয়াদ, মুশফিক, আশরাফুল, মাশরাফি, রাজ্জাক, তামিমরা খেললেও একমাত্র সাকিবই দাপটের সাথে খেলছেন নিয়মিত, আর মুস্তাফিজ-তামিমরা অল্পবিস্তর খেলছেন ভিনদেশী লীগে।

টি১০ ক্রিকেট আবির্ভারের শুরুতে তামিম-সাকিবই খেলেছেন শুধুমাত্র। টি২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশীদের কদর না থাকার বিপরীতে টি১০ ক্রিকেটে যেখানে তামিম-সাকিবের বাহিরে আর কোন ক্রিকেটারের সুযোগ হবে কিনা সে সংশয় তৈরী হয়েছে, সেখানে আসন্ন টি০ লীগে বাংলা টাইগার্স নামে বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের মালিকানাধীন দলটিতে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে বাংলাদেশী ক্রিকেটার ও কোচদের।

আসন্ন টি১০ লীগের ৩য় আসরে খেলবে বাংলা টাইগার্স, দলটির হেড কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন আফতাব আহমেদ। ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন নাফিজ ইকবাল এবং ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন নাজিম উদ্দিন।

জাতীয় দলের একঝাক ক্রিকেটার খেলবেন টি১০ লীগে। সাকিব-তামিমদের ব্যস্ততার কারনে খেলার সুযোগ না থাকায় জায়গা করে নিয়েছেন ফ্রি থাকা ক্রিকেটাররা। ফরহাদ রেজা, ইমরুল কায়েস, ইয়াসির আলী রাব্বি, এনামুল হক বিজয়, আরিফুল হক ও মেহেদী হাসান। দলটিতে আইকন হিসেবে থাকার সম্ভাবনা বেশি লংকান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরার। অধিনায়কত্ব করবেন ইমরুল কায়েস। সেই সাথে বিদেশী আরো বহু তারকা ক্রিকেটার যুক্ত হবেন বাংলা টাইগার্সে।

দলটির মালিক বাংলাদেশী হলেও ভিনদেশী একটি লীগে বাংলাদেশী কোচ ও একসাথে এতো ক্রিকেটারের অংশগ্রহণ করা নিঃসন্দেহে ফ্রাঞ্চাইভিত্তিক লীগের ইতিহাসে বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের জন্য দারুন পাওয়া। রেজা-বিজয়রা টি১০ লীগে সফল হলে ভবিষ্যতেও ভিনদেশী লীগে বাংলাদেশীদের কদর বাড়বে, সেই সাথে বাংলাদেশী কোচদেরও অবস্থা সুদৃঢ় হবে, যার মাধ্যমে বাংলাদেশ ক্রিকেটই এগিয়ে যাবে নিঃসন্দেহে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *