Breaking News

গরু চু’রির দায়ে ইউপি মেম্বার গ্রে’ফতার

পু’লিশের তালিকাভুক্ত গরু চো’র ও ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজে’লার অচিন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আরিফুল ইস’লাম সুমন ওরফে কসাই সুমনকে গরুসহ গ্রে’ফতার করা হয়েছে।মঙ্গলবার রাতে নেত্রকোনার কেন্দুয়া এলাকা থেকে শেরপুর জে’লা গোয়েন্দা পু’লিশ (ডিবি) তাকে গ্রে’ফতার করে।আরিফুল ইস’লাম সুমন খান্দার গ্রামের মো. লাল মিয়া ওরফে লালু কসাইয়ের পুত্র।

শেরপুর গোয়েন্দা পু’লিশ সূত্র জানায়, অচিন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আরিফুল ইস’লাম সুমন ওরফে কসাই সুমন আন্তঃজে’লা গরু চো’র সিন্ডিকে’টের প্রধান। তাকে মঙ্গলবার নেত্রকোনার কেন্দুয়া এলাকা থেকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। তার বি’রুদ্ধে ২০১৬ সালে ১০ মা’র্চ তারিখে নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ ও গৌরীপুর থা’নায় ২০১৮ সালের ২৪ ডিসেম্বর আরও দুটি মা’মলার এজাহারভূক্ত আ’সামি।

এদিকে মঙ্গলবার রাতে ডৌহাখলা ইউনিয়নের ঝাউগাই গ্রামে মো. আবদুল জব্বারের পুত্র মো. মাসুদ রানার ৩টি গরু, মোম’রুজ আলীর পুত্র মো. নাজিম উদ্দিনের ৩টি গরু ও মৃ’ত হাফিজ উদ্দিনের পুত্র মো. মুন্নাছ আলীর ৪টি গরু চু’রি হয়ে গেছে।একই ইউনিয়নের নন্দীগ্রামে এক কৃষকের ৪টি গরু বৃহস্পতিবার রাতে চু’রি যাওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। অ’পরদিকে সহনাটী ইউনিয়নে ৩ কৃষকের ৭টি গরু গত সপ্তাহে চু’রির সংবাদ পাওয়া গেছে।

গৌরীপুর থা’নার পরিদর্শক (ত’দন্ত) গো’লাম মা’ওলা জানান, গরু চু’রির প্রত্যেকটি ঘটনায় মা’মলা হয়েছে। চো’র সনাক্ত করে তাদেরকে গ্রে’ফতারের অ’ভিযানও অব্যাহত আছে।পু’লিশের তালিকাভুক্ত গরু চো’র ও ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজে’লার অচিন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আরিফুল ইস’লাম সুমন ওরফে কসাই সুমনকে গরুসহ গ্রে’ফতার করা হয়েছে।মঙ্গলবার রাতে নেত্রকোনার কেন্দুয়া এলাকা থেকে শেরপুর জে’লা গোয়েন্দা পু’লিশ (ডিবি) তাকে গ্রে’ফতার করে।আরিফুল ইস’লাম সুমন খান্দার গ্রামের মো. লাল মিয়া ওরফে লালু কসাইয়ের পুত্র।

শেরপুর গোয়েন্দা পু’লিশ সূত্র জানায়, অচিন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আরিফুল ইস’লাম সুমন ওরফে কসাই সুমন আন্তঃজে’লা গরু চো’র সিন্ডিকে’টের প্রধান। তাকে মঙ্গলবার নেত্রকোনার কেন্দুয়া এলাকা থেকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। তার বি’রুদ্ধে ২০১৬ সালে ১০ মা’র্চ তারিখে নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ ও গৌরীপুর থা’নায় ২০১৮ সালের ২৪ ডিসেম্বর আরও দুটি মা’মলার এজাহারভূক্ত আ’সামি।এদিকে মঙ্গলবার রাতে ডৌহাখলা ইউনিয়নের ঝাউগাই গ্রামে মো. আবদুল জব্বারের পুত্র মো. মাসুদ রানার ৩টি গরু, মোম’রুজ আলীর পুত্র মো. নাজিম উদ্দিনের ৩টি গরু ও মৃ’ত হাফিজ উদ্দিনের পুত্র মো. মুন্নাছ আলীর ৪টি গরু চু’রি হয়ে গেছে।

একই ইউনিয়নের নন্দীগ্রামে এক কৃষকের ৪টি গরু বৃহস্পতিবার রাতে চু’রি যাওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। অ’পরদিকে সহনাটী ইউনিয়নে ৩ কৃষকের ৭টি গরু গত সপ্তাহে চু’রির সংবাদ পাওয়া গেছে।গৌরীপুর থা’নার পরিদর্শক (ত’দন্ত) গো’লাম মা’ওলা জানান, গরু চু’রির প্রত্যেকটি ঘটনায় মা’মলা হয়েছে। চো’র সনাক্ত করে তাদেরকে গ্রে’ফতারের অ’ভিযানও অব্যাহত আছে।

যুগান্তর

About admin

Check Also

ঘরের বাইরে মাস্ক পরিধানের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় দফা বিস্তার প্রতিরোধে ঘরের বাইরে মাস্ক পরিধানের জন্য জনসাধারণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *