Breaking News

শ্রীলঙ্কায় করোনায় সন্দেহে পু’ড়িয়ে ফেলা হচ্ছে মুসলিমদের লাশও! আল জাজিরা।

করোনা আক্রান্ত মৃতদের থেকে ঝুঁকির অজুহাত দেখিয়ে মুসলিমদের লাশও পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে শ্রীলঙ্কায় সরকার। নতুন এই নির্দেশনার গেজেট গত ১১ এপ্রিল প্রকাশ করেছে। ফলে দেশটিতে মুসলিমদের লাশও পুড়িয়ে ফেলতে বাধ্য করা হচ্ছে। এতে ওই দেশের সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

শ্রীলঙ্কায় এ পর্যন্ত ৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। তাদের মধ্যে তিনজন মুসলমানও রয়েছে। তবে তাদের আত্মীয়-স্বজনদের প্রচণ্ড বিরোধিতা সত্ত্বেও তাদের লাশ পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও (ডব্লিউএইচও) বলেছে, করোনায় মৃতদের লাশ পুড়িয়ে ফেলা বা মাটিতে সমাধিস্থ করা যাবে।

তবে ডব্লিউএইচও’র এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে এককভাবে মুসলমানদের লাশ পুড়িয়ে ফেলছে শ্রীলঙ্কা সরকার।

এমনকি কোভিড-১৯ আক্রান্ত না হয়েও এই আইনের স্বীকার হতে হয়েছে এক পরিবারকে। দেশটির রাজধানী কলম্বোর জুবাইর ফাতিমা রিনোসা নামে এক মুসলিম নারীর লাশ কোভিড-১৯ আক্রান্ত সন্দেহে পুড়িয়ে ফেলতে বাধ্য করা হয়। ৪৪ বছর বয়সী ওই নারীর শবদাহ সম্পন্ন হওয়ার দু’দিন পর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এখন ওই নারী শোকগ্রস্থ পরিবার এই ঘটনার ন্যায়বিচার দাবি করছে।
রিনোসার চার সন্তানের একজন মোহাম্মদ সাজিদ বলেছেন, দাফনের ইসলামিক ঐতিহ্য উপেক্ষা করে সব করোনা রোগীর লাশ পোড়ানোর বিষয়ে শ্রীলঙ্কার সরকারের বিতর্কিত বিধান করেছে। ওই বিধান অনুযায়ী তার মায়ের লাশ গত ৫ মে পোড়ানো হয়।

তিনি বলেন, আমার ভাইকে কর্তৃপক্ষের চাপে লাশ পোড়ানোর জন্য সম্মতি ফরমে স্বাক্ষর করতে হয়েছে। তারপর ৭ মে আমরা সংবাদ মাধ্যমের বরাত দিয়ে জানতে পারি আমাদের মায়ের মৃত্যু করোনায় হয়নি। তার পরীক্ষার ফল ভুল এসেছে।

এ ব্যাপারে শ্রীলঙ্কা মুসলিম কংগ্রেসের (এসএলএমসি) আলী জহির মওলানা আল জাজিরাকে বলেছেন, মুসলিম পরিবারগুলো কেবল আপনজনই হারাচ্ছে না, তারা বঞ্চিত হচ্ছে ধর্মীয় অধিকার থেকেও। কর্তৃপক্ষ তাদের সাথে খুব খারাপ আচরণ করছে।

ইসলাম ধর্মের রীতি অনুযায়ী, কোনো মুসলিম মারা গেলে তাকে গোসল ও জানাজা শেষে কবর দিতে হবে। কিন্তু এই শেষ অধিকারটুকু থেকে বঞ্চিত হওয়ায় সংখ্যালঘু শ্রীলঙ্কান মুসলিম মৃতদের স্বজনরা ন্যায়বিচারের দাবি করছে।

উল্লেখ্য, দেশটিতে এ পর্যন্ত ৮৬৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা গেছে। মোট মারা গেছে ৯ জন।

সূত্র : আল জাজিরা

About admin

Check Also

আরব আমিরাতে ৩০% কোম্পানীর কর্মী ছাটাইয়ের পরিকল্পনা, ১০% কোম্পানীর বেতন কমিয়েছে

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আয়-ব্যায়ের উপর কোভিড -১৯ এর প্রত্যক্ষ প্রভাব প্রাথমিকভাবে আশঙ্কার চেয়ে কম। যদিও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *