অবশেষে বাদ পড়লেন স্পেশালিস্ট সাব্বির

দাহাস ট্রফির ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে সাব্বিরের ব্যাটে রান। ৭৭ রানের ইনিংসে বাংলাদেশ দলকে জয়ের ভীত গড়ে দিয়েছিলেন। যদিও শেষ ওভারে দিনেশ কার্তিকের অতিমানবীয় ব্যাটিংয়ের কাছে পরাস্ত হয় বাংলাদেশ।

১৮ মার্চ ২০১৮ সালের পর টি-২০ ক্রিকেটে আরো পাঁচটি ম্যাচ খেলেছেন সাব্বির যেখানে তার সর্বোচ্চ সংগ্রহ ২৪ রান। ঐ বছরেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণে খেলতে পারেননি উইন্ডিজের বিপক্ষে ফ্লোরিডায়। পরে দেশের মাটিতেও উপেক্ষিত ছিলেন একই কারণে।

সাকিব-তামিম-মুশফিক-রিয়াদ’দের পর জাতীয় দলে সবচেয়ে বেশি টি-২০ খেলা ক্রিকেটারদের মধ্যে অন্যতম একজন সাব্বির রহমান। মূলত তাকে টি-২০ স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান ভাবা হয়। কিন্তু ৪৪ ম্যাচের পরিসংখ্যান সেভাবে তার পক্ষে কথা বলে না।

ক্যারিয়ারের শুরুতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৫ সালে একটি ফিফটি তুলে নেন তিনি। পরের বছর খুলনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এবং একই বছর ঢাকায় লঙ্কানদের বিপক্ষে খেলেন ক্যারিয়ার সেরা ৮০ রানের ইনিংস। তারপর থেকেই নিজেকে খুঁজে ফিরছেন সাব্বির। তৃতীয় ফিফটির পর চতুর্থ ফিফটির জন্য অপেক্ষায় থাকেন পুরো ২ বছর। এই সময়ে কুড়ির উপরে ম্যাচ খেলেন তিনি।

স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ান ডাউন থেকে শুরু করে খেলেছেন আরো দুটি পজিশনে (৫ ও ৬)। যদিও ক্যারিয়ারের বেশির ভাগ সময় তিনি ৩ নম্বরে ব্যাট করেছেন কিন্তু প্রত্যাশা মাফিক পারফর্ম না আসাতে অবশেষে দল থেকে বাদ পড়েছেন ২৭ বছর বয়সি এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

সাব্বিরের সাথে দল থেকে বাদ পড়েছেন সবশেষ সিরিজের দলে থাকা: রুবেল হোসেন, তাইজুল ইসলাম এবং নাজমুল হোসেন। ৩ বছর পর দলে ফিরেছেন বাহাতি স্পিনার আরাফাত সানি এবং পেসার আল-আমিন হোসেন।

ভারত সফরের জন্য বাংলাদেশের টি-২০ দল: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, লিটন দাস, সৌম্য সরকার, নাঈম শেখ, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, আরাফাত সানি, সাইফউদ্দিন, আল-আমিন হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান ও শফিউল ইসলাম।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *